আজ | বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯
Search

সৌরভ গাঙ্গুলীর হুংকার

৩:২৬ অপরাহ্ন, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯

chahida-news-1571045187.jpg
ফাইল ছবি

সবকিছু ঠিক থাকলে দ্য বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। ভারতের সব রাজ্য সংস্থার সব ভোট সৌরভের পক্ষে পড়ায় এক প্রকার নিশ্চিত যে পরবর্তী বোর্ড প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। প্রেসিডেন্টের জন্য মনোনীত হয়েই বোর্ডের ভাবমূর্তি নষ্ট হতে দেবেন না বলে হুংকার দিলেন সৌরভ।

সোমবার বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। কিন্তু গতকাল রাতেই সব রাজ্য সংস্থার একচেটিয়া ভোট পড়ে তার পক্ষে। বিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি নারায়ণস্বামী শ্রীনিবাসনের পছন্দের ব্যক্তি সাবেক ক্রিকেটার ব্রিজেশ প্যাটেলের কথা শোনা গেলেও সেই সম্ভাবনা বাতিল হয়ে গেছে।

সৌরভের প্রেসিডেন্ট হওয়ার খবরে চমকে উঠতে পারেন অনেকেই। কেউ কেউ ভেবেছিলেন তিনি ভারতীয় দলের কোচ হতে পারেন। আপাতত বোর্ডের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পথে তিনি। এছাড়া ইউনিয়ন হোম মিনিস্টার অমিত শাহর ছেলে সেক্রেটারি হতে যাচ্ছেন।

সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সৌরভ জানালেন, তিনি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ইমেজ ক্লিন করতে চান।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে সৌরভ বলেন, ‘বোর্ডের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই এই সময়ে প্রেসিডেন্ট হতে পারায় খুশি। কিছু করার জন্য দারুণ সুযোগ পেয়েছি। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হোক বা অন্যভাবেই হোক, এটা অনেক বড় দায়িত্ব। বিসিসিআই বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় সংস্থা। ভারত হলো ক্রিকেটের পাওয়ারহাউস। এই দায়িত্ব তাই রীতিমতো চ্যালেঞ্জিং।’

এ ছাড়া তিনি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটারদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি নিয়েও কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন।

এদিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে মনোনীত হওয়ায় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সৌরভকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এক টুইট বার্তায় মমতা বলেন, ‘ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট মনোনীত হওয়ায় তোমাকে অন্তরের অন্তস্থল থেকে অভিনন্দন জানাই। তুমি ভারত ও বাংলার গর্ব। ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলে তোমার কাজে আমরা গর্বিত।’

বর্তমানে ৪৭ বছর বয়সী সৌরভ এখন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হলে এই পদ ছাড়তে হবে তাকে।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন