আজ | শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯
Search

পুরনো শ্রীলংকা

২:৪৪ অপরাহ্ন, ২ জুলাই, ২০১৯

chahida-news-1562057073.jpg

র‌্যাংকিংয়ে আটে থেকে বিশ্বকাপ খেলতে আসে শ্রীলংকা। আসর শুরুর আগেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ তা দখল করে নেয়। লংকানরা আবার জায়গা উদ্ধার করেন। তারপরও বিশ্বকাপে লংকানরা আন্ডারডগ। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দলের সিনিয়রদের কাঁধে চেপে দারুণ এক জয় পায় শ্রীলংকা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হাথুরুসিংহের শিষ্যরা সোনালি যুগের সেই শ্রীলংকার মতো ব্যাটিং করলো। শেলডম কটরেল-জেসন হোল্ডারদের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে ৬ উইকেটে তুলল ৩৩৮ রান।

সর্বশেষ বিশ্বকাপেও শ্রীলংকা দারুণ ক্রিকেট উপহার দেয়। সাঙ্গাকারা দুর্দান্ত ব্যাটিং করে বিশ্বকাপে টানা সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েন। কিন্তু সাঙ্গাকারা-দিলশানরা অবসর নিতেই বিবর্ণ হয়ে পড়ে শ্রীলংকা। তাদের পুরনো ঐতিহ্যে ফেরাতে দলের দায়িত্ব নেন হাথুরুসিংহে। কিন্তু গুছিয়ে উঠতে পারছিলেন না। বিশ্বকাপে এক প্রকার বিদায় হয়ে যাওয়া শ্রীলংকা এ ম্যাচে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলল। সেমির সেমিতে যেতে না পারলেও পয়েন্ট টেবিলে মর্যাদার স্থানে থাকার লড়াইয়ে তারা নিজেদের সামিল করল।

রিভারসাইড গ্রাউন্ডে টস হেরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ব্যাট পায় শ্রীলংকা। দুই লংকান ওপেনার দারুণ শুরু করেন। তুলে ফেলেন ৯৩ রান। এরপর ১০৪ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় শ্রীলংকা। তাদের ইনিংসে ছন্নছাড়া ভাব শুরু হয়েছে বলেই মনে হয়। দলীয় অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ৩২ রান করে ফেরেন। দারুণ খেলা কুশল পেরেরা করেন ৬৪ রান। রান আউটে কাটা পড়েন তিনি।

এরপর আভিস্কা ফার্নান্দো এবং কুশল মেন্ডিস আবার দারুণ এক জুটি গড়েন। তুলে ফেলেন ৮৫ রান। কুশল মেন্ডিস আউট হন ৩৯ রান করে। তবে আভিস্কা ছিলেন অনন্য। তিনি ১০৩ বলে ১০৪ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেন। পরে অ্যাঞ্জেল ম্যাথুস ২৬ এবং লাহিরু থিরিমান্নে ৪৫ রান করলে ভালো সংগ্রহ পেয়ে যায় শ্রীলংকা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে এ ম্যাচে দুই উইকেট নেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। শেলডম কটরেল, ওসানে থমাস এবং ফ্যাবিয়ান অ্যালেন নেন একটি করে উইকেট। এখন লাসিথ মালিঙ্গা, ইসুরু উদানাদের এই রান আটকাতে হবে। ক্রিস গেইল, শাই হোপদের সামনে কাজটা সহজ নয় নিশ্চিয়। উইকেট আবার ব্যাটিং সহায়ক। 

  

আপনার মন্তব্য লিখুন