আজ | বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
Search

পারভেজকে চাপা দেওয়া বাসটি চালাচ্ছিলেন সুপারভাইজার

১:৪১ অপরাহ্ন, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

chahida-news-1569051709.jpg

ঢাকার উত্তরার তুরাগ থানা এলাকার প্রধান সড়কে বাসচাপায় সংগীতশিল্পী পারভেজ রব নিহত হওয়ার ঘটনায় বাসের চালক মোহাম্মদ সুমন (২৮) ও সুপারভাইজার আকতার হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার সময় চালকের আসনে বসে সুপারভাইজার বাসটি চালাচ্ছিলেন বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে আসামিরা।

শুক্রবার আলাদা দুটি অভিযান চালিয়ে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থেকে চালক সুমন এবং শরীয়তপুরের নড়িয়া থেকে বাসের সুপারভাইজার আকতার হোসেনকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। গ্রেপ্তারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সুমন ডিবি পুলিশকে ঘটনার বিস্তারিত জানান।

বাসচালক সুমন এবং সুপারভাইজার আকতার হোসেন কারও চালকের সনদপত্র ছিল না বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিবি (উত্তর) উপকমিশনার মশিউর রহমান বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে সুমন জানিয়েছেন, ঘটনার দিন সকাল ১০টার দিকে তিনি ও আকতার বাসটি নিয়ে বের হন। তখন বাসটি চালাচ্ছিলেন সুপারভাইজার আকতার। আর চালকের পাশের আসনে বসে ছিলেন সুমন। ধউর এলাকায় ইস্ট ওয়েস্ট মেডিকেল কলেজের সামনে পারভেজ রব তাদের বাসকে থামার সংকেত দেন। কিন্তু চালকের আসনে বসে থাকা আকতার বাসটি না থামিয়ে তাকে চাপা দিয়ে চলে যায়। পরে নিরাপদ জায়গায় বাসটি থামিয়ে তারা দুজন পালিয়ে যান।

মশিউর রহমান বলেন, প্রায় ১৫ দিন পালিয়ে থাকার পর ডিবি উত্তরের অতিরিক্ত উপকমিশনার কাজী শফিকুল আলম ও বদরুজ্জামানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে সুমন এবং আকতারকে গ্রেপ্তার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৫ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টার দিকে তুরাগ থানা এলাকার ইস্ট ওয়েস্ট মেডিকেল কলেজের সামনের প্রধান সড়কে বাসচাপায় নিহত হন সংগীতশিল্পী পারভেজ রব। তিনি মারা যাওয়ার দুদিন পর ভিক্টর ক্লাসিক পরিবহনের আরেকটি বাসের চাপায় তার ছেলে ইয়াসির আলভী মারাত্মক আহত হন।

রাজধানীর ট্রমা সেন্টারে প্রায় চারদিন চিকিৎসা করানো হয় আলভীর। পরে বাড়ি ফিরে গেলেও তার অবস্থার অবনতি হয়। গত সোমবার আলভীকে রাজধানীর আদ-দ্বীন হাসপাতাল ভর্তি করানো হয়। সেখানে তার কোমরে অস্ত্রোপচার করানো হয়েছে বলে জানান আলভীর মা রুমানা সুলতানা। গত ৭ সেপ্টেম্বরের এ ঘটনায় মারা যায় তার বন্ধু মেহেদী।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন