আজ | মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯
Search

অবশেষে মৃত্যুর কাছে হারলেন সেই ফায়ারম্যান

১২:১০ অপরাহ্ন, ৮ এপ্রিল, ২০১৯

chahida-news-1554703808.jpg

বনানীর এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্ধারকাজ চালাতে গিয়ে গুরুতর আহত ফায়ার সার্ভিস কর্মী সোহেল রানা মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)।

বাংলাদেশ সময় রোববার রাত ২টা ১৭ মিনিটে সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এর মধ্য দিয়ে এফআর টাওয়ার অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭ জনে দাঁড়ালো।

বিষয়টি গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার লিমা খানম।

এর আগে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয় রানাকে।

উল্লেখ্য, গত ২৮ মার্চ এফ আর টাওয়ারে আগুনে আটকেপড়া ব্যক্তিদের উদ্ধারের সময়ে ল্যাডারের সিঁড়িতে আটকে রানার পা ভেঙে যায়। পেটেও গুরুতর আঘাত পান তিনি। ওইদিন থেকেই তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। পরে শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে রানাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়।

নিহত সোহেল রানা কুর্মিটোলা ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান। সেদিনের ঘটনার বিবরণ দিয়ে ওই স্টেশনের ঊর্ধ্বতন স্টেশন কর্মকর্তা বজলুর রশীদ বলেন, রানাসহ কয়েকজন ল্যাডারে (স্বয়ংক্রিয় মই) করে আটকেপড়া ব্যক্তিদের নামিয়ে আনছিলেন। একটি ল্যাডারে সর্বোচ্চ চার থেকে ছয়জনকে উদ্ধার করা যায়। কিন্তু রানাসহ তিনজন ল্যাডারে ছিল। তখন আগুনে আটকেপড়া বেশিসংখ্যক লোককে সুযোগ করে দিতে রানা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ল্যাডারের সিঁড়ি বেয়ে নামার চেষ্টা করেন। কিন্তু ল্যাডারটি যখন স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিচের দিকে নেমে আসছিল, তখনই হঠাৎ করে রানার পা মইয়ের ভেতরে আটকে গিয়ে ভেঙে কয়েক ভাগ হয়ে যায়। একই সময়ে সেফটি বেল্টে চাপ লেগে তার পেট ছিদ্র হয়ে যায়।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন