আজ | রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯
Search

প্রচ্ছদ বিদেশ

৬১  বার পড়া হয়েছে

শরীয়া আইন চালু করলেন ব্রুনাই সুলতান

১২:১৩ অপরাহ্ন, ৮ এপ্রিল, ২০১৯

  

chahida-news-1554704027.jpg
ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসান আল বলকিয়া

ইসলামী শরিয়া মোতাবেক দেশ চালানোর কথা পুণর্ব্যক্ত করে ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসান আল বলকিয়া বলেছেন, ব্রুনাই সর্বদা আল্লাহর কাছে অনুগত থাকবে এবং দেশের আইন কানুন শরীয়া অনুযায়ী চলবে।

দেশটির রাজধানী বন্দর সেরি বেগাওয়ানের একটি কনভেনশন সেন্টারে দেয়া ভাষণে তিনি বলেন, আমি এই দেশে ইসলামী শিক্ষা শক্তিশালী করতে চাই। আমি জোর দিয়ে বলতে চাই যে ব্রুনাই এমন একটি দেশ, যে দেশটি সর্বদা আল্লাহর কাছে অনুগত থাকবে।

সুলতানের এ ভাষণ দেশটির সম্প্রচার মাধ্যমগুলোতে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। খবর দ্যা টেলিগ্রাফের

নাগরিকদের বেশি বেশি ধর্মীয় চর্চার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, শুধু মসজিদেই নামাজ আদায়কে সীমাবদ্ধ রাখা যাবে না। মানুষের মধ্যে ধর্মীয় প্রেরণা বাড়াতে উন্মুক্ত স্থানে নামাজ আদায় করতে হবে।

শরিয়াহ আইনের কারণে দেশের শান্তি শৃঙ্খলা উন্নত হবে জানিয়ে সুলতান হাসান আল বলকিয়া বলেন, ব্রুনাই ভ্রমণকারীরা দেশটির নিরাপদ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ দেখে মুগ্ধ হবে। এটিই শরীয়া আইনের দেশ ব্রুনাইয়ের সফলতা।যে কেউ এই দেশে আসার পর একটি সূখকর অভিজ্ঞতা পাবে, এবং নিরাপদ ও সুসংগত পরিবেশ উপভোগ করবে।

প্রসঙ্গত, দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশ ব্রুনাইয়ে গত ৩ এপ্রিল ইসলামি শরিয়া আইন চালু হয়েছে। ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসান আল বলকিয়া এ আইন চালুর ঘোষণা দেন।

নতুন এ আইনে সমকামিতা ও ব্যভিচারের জন্য পাথর ছুড়ে মৃত্যুদণ্ডের কথা বলা হয়েছে। তবে সমকামিতা অনেক আগে থেকেই নিষিদ্ধ ছিল ব্রুনাইয়ে। সমকামিতা নিষিদ্ধ করে এর শাস্তির বিধান করা হয়েছিল ১০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড।

দেশটির সমকামিতার সমর্থকরা এটাকে ‘মধ্যযুগীয় শাস্তির বিধান’ হিসেবে অভিহিত করে উদ্বেগ জানালেও দেশটির ৮০ শতাংশ মুসলিম নতুন এ আইনে সমর্থন জানিয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে।

ব্রুনাইতে নতুন শরিয়া দণ্ডবিধি অনুযায়ী, অভিযুক্তরা যদি নিজেদের সমকামী বলে স্বীকার করেন অথবা অন্তত চারজন প্রত্যক্ষদর্শী তাদের এ ধরনের কাজ করতে দেখেন তবেই তাদের সমকামিতার দায়ে অপরাধী সাব্যস্ত করা যাবে। তাছাড়া চুরির দায়ে অঙ্গচ্ছেদের মতো দণ্ডও রাখা হয়েছে আইনটিতে।

সূত্র: টেলিগ্রাফ

  

আপনার মন্তব্য লিখুন