‌অবৈধ সম্পর্ক নিয়ে মিলার অভিযোগে যা বললেন নওশীন
আজ | শনিবার, ২৫ মে ২০১৯
Search

‌অবৈধ সম্পর্ক নিয়ে মিলার অভিযোগে যা বললেন নওশীন

১২:৫৪ অপরাহ্ন, ২৫ এপ্রিল, ২০১৯

chahida-news-1556175248.jpg

বৈমানিক পারভেজ সানজারির সঙ্গে অভিনেত্রী নওশীনের অবৈধ সম্পর্ক ছিল বলে অভিযোগ করেছেন পপ সংগীতশিল্পী মিলা। এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন নওশীন নাহরিন মৌ। তিনি এই অভিযোগের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

বুধবার জাতীয় একটি দৈনিকের অনলাইন ভার্সনকে নওশীন বলেন, ‘মিলা আমাকে ভুল বুঝছে। আমাকে নিয়ে যা অভিযোগ হচ্ছে তা পুরোটাই ভিত্তিহীন, ভুল ও বানোয়াট। আমি এমন ভুল, ভিত্তিহীন অভিযোগের নিন্দা জানাচ্ছি।’

মিলার অভিযোগ অস্বীকার করে নওশীন বলেন, ‘মিলা আমার ছোট বোনের মতো। তার বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নেই। আমার এই বিষয়ে কথা বলতে ঘৃণা হচ্ছে। শিল্পী হিসেবে তার যদি ১৪-১৫ বছর হয়, তাহলে আমিও তো ১২-১৩ বছর ধরে কাজ করছি। আমারও তো একটা সংসার আছে। আমি আট-নয় বছর ধরে সংসার করছি।’

এই অভিনেত্রী বলেন, ‘এটার তার (মিলা) ভুল বোঝা। আমি এই বিষয়ে কিছুই জানি না। আমার সম্পর্কে তার এই অভিযোগ ভুল, বানোয়াট। মিলা সুবিচার পাক, তার যেই অভিযোগগুলো সেগুলোর জন্য সে বিচার পাক, তা আমি মন থেকে চাই।

নওশীল আরও বলেন, ‘এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভুল ও বানোয়াট। আপনারা দরকার হলে তার স্বামীর সঙ্গেও কথা বলুন। ’

এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি রেস্তোরায় সংবাদ সম্মেলনে মিলা সাবেক স্বামী বৈমানিক পারভেজ সানজারি ও তার পরিবার এবং ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের এমডিসহ দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে মিলা অভিযোগ করেন, তার স্বামীর সঙ্গে অনেক মেয়ের অবৈধ সম্পর্ক ছিল। অভিনেত্রী নওশীন নাহরিন মৌ-এর সঙ্গেও ছিল তার অবৈধ সম্পর্ক। বিষয়টি জানতে পেরে তিনি ফোনও করেন নওশীনকে।

সংবাদ সম্মেলনে সেই ফোন রেকর্ড সাংবাদিকদের শোনান মিলা। তবে সেই কথোপকথনে মিলার কণ্ঠ স্পষ্ট শোনা গেলেও নওশীনের কথাগুলো অস্পষ্ট শোনা যাচ্ছিল।

এই পপতারকা বলেন, ‘নওশীন ও পারভেজ সানজারির কথোপকথনের কিছু রেকর্ড আমার হাতে আসে। এমন কিছু ছবিও দেখি, যা মুখে প্রকাশ করার মতো না। বিষয়টি দেখে, আমি নওশীনকে ফোন করি। তাকে অনুরোধও করেছি, কিন্তু সে আমার কোনো কথাই শোনেনি।’

মিলা জানান, তার সাবেক স্বামীর সঙ্গে নওশীনের অবৈধ সম্পর্কের বিষয়ে হিল্লোলকে (নওশীনের স্বামী) জানানোর পরও কোনো সুরাহা হয়নি। উল্টো বিষয়টি নিয়ে সাইবার ক্রাইমে মিলার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন নওশীন। পরে সাইবার ক্রাইম বিভাগ থেকে তাকে ফোনও করা হয়।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন