আজ শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ |
Search

প্রচ্ছদ ভিন্ন খবর মায়ের মরদেহ ৩ বছর ধরে সংরক্ষণ!

১০৭  বার পড়া হয়েছে

মায়ের মরদেহ ৩ বছর ধরে সংরক্ষণ!

চাহিদা নিউজ ডেস্ক | ১:২৭ অপরাহ্ন, ৯ এপ্রিল, ২০১৮

  

chahida-news-1523258867.jpg

ভারতের বেহালায় মায়ের মরদেহ তিন বছর ধরে ফ্রিজারে সংরক্ষণ করে রেখেছেন শুভব্রত মজুমদার। শুভব্রতের বিশ্বাস, ‘ক্রায়োনিক্স’ নামে এক বিশেষ পদ্ধতিতে মস্তিষ্ক সংরক্ষণ করলে ভবিষ্যতে তা আবার সচল হয়ে উঠতে পারে। তাকে জেরা করে বেরিয়ে এসেছে সম্পূর্ণ নতুন এক চমকপ্রদ তথ্য। পুলিশ জানায়, শুভব্রত তাদের অনুরোধ করেছেন, মায়ের মস্তিষ্কটি যেন রেখে দেয়া হয়।

শুভব্রত পুলিশের কাছে দাবি করেছেন, ওই পদ্ধতিতে দেহ সংরক্ষণে বিশ্বাস করতেন তার মা বীণাদেবীও। নিজের দেহ সংরক্ষণের বিষয়ে সম্মতি দিয়েছিলেন তিনি। সেই কাজে আমেরিকার অ্যারিজোনার একটি গবেষণা সংস্থার সাহায্য নিয়েছিলেন শুভব্রত। এ ঘটনায় প্রথমে আটক হলেও পরে ছায়া পেয়ে যান শুভব্রত।

জেরায় শুভব্রত জানিয়েছেন, অ্যারিজোনার ওই সংস্থাটি ‘ক্রায়োনিক্স’ পদ্ধতিতে মৃত মানুষের দেহ, বিশেষ করে মস্তিষ্ক সংরক্ষণ নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে। কারণ, ওই সংস্থা বিশ্বাস করে, মস্তিষ্কের মৃত্যু হয় না। নিষ্ক্রিয় হয়ে গেলেও ফের তাকে চালু করা যায়। শুভব্রতের দাবি, বছর পাঁচেক আগে এটা জানতে পেরে বীণাদেবী এবং তিনি, দু’জনেই আগ্রহী হয়ে ওই সংস্থার ওয়েবসাইট দেখেন।

তার পরে ওই সংস্থার সদস্য হয়ে তাদের ওয়েবসাইট ঘেঁটে প্রচুর পড়াশোনাও করেছেন মা-ছেলে। চ্যাটের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত ওই সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন শুভব্রত। মায়ের মৃত্যুর পরে শুভব্রত তার দেহ সংরক্ষণ করেন তাদের পরামর্শেই। তার পরে ওই সংস্থার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখে গিয়েছেন তিনি। জেরায় শুভব্রত পুলিশকে জানান, ওই সংস্থার মতো তারও দৃঢ় বিশ্বাস, আগামী দিনে চিকিৎসা ব্যবস্থার আরও অগ্রগতি ঘটলে মৃত মানুষের অঙ্গপ্রত্যঙ্গও ফের সচল করা সম্ভব হবে। আর সেভাবেই মৃত মানুষকে ফের বাঁচিয়ে তোলা যাবে। এবিসি নিউজ।

  

Post Your Comment